5 Technical SEO Villains for A Website 0 147

seo problems of ecommerce

Technical SEO is very crucial when it’s come to e-commerce website. Normally ecommerce websites are very large in size. And ecommerce seo is playing normally a vital role to it’s traffic and overall business. Let’s know about some problems of Technical seo of an ecommerce.

  • No Crawl Budget Optimization: Firstly, Crawl budget optimization is the process of helping Googlebot, and other search engines crawl and index more of your important content. This is the way to tell search engines to avoid less important pages not to crawl/index. Most of the websites are missing this important technical SEO tricks.
  • Out Of Stock Product: Secondly, Out of Stock product pages are really a huge negative factor in terms of SEO. Users are getting wrong idea about your pages and overall websites. This is also an impacting factor for incremental bounce rate and dwell time.
  • No Rich Data? It’s a Problem: Thirdly, Now a days, rich data is playing some important role over ranking. If you want to compete in this high competitive market, then you definitely have to use structured data/ breadcrumb navigational usage in your website. If you don’t have, its an issue. This is also a technical SEO tricks.
  • Mobile Usability Issue: Fourthly, The big era of Mobile first indexing is knocking at the door. Someone should heavily focus on mobile device usability. And also all ranking factor related to accelerated mobile pages to ensure mobile first indexing.
  • Core Web Vitals – Page Speed Issue: Finally, Search optimizing for quality of user experience is key to the long-term success of any website on the web. Core Web Vitals are the subset of Web Vitals that apply to all web pages. Each of the Core Web Vitals represents a distinct facet of the user experience. As a result, Issues in core web vitals can affect pages speed of your website which is an important ranking factor.
Previous Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম 0 458

বিকাশ কি?

বিকাশ(bKash) বর্তমানে বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় মোবাইল ব্যাংকিং(Mobile Banking) মাধ্যম। দেখে নিন কিভাবে আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র(NID) দিয়ে বিকাশ একাউন্ট খুলতে পারবেন মিনিটেই। এই কাজটি সহজে করতে পারবেন ঘরে বসে আপনার মোবাইল ফোনের মাধ্যমেই। বিকাশ অ্যাপ এর মাধ্যমে আমরা ঘরে বসেই বিদ্যুৎ বিল দিতে পারি। তাছাড়া আরো অনেক টাকা লেনদেনের কাজ করতে পারবেন বিকাশ ব্যবহার করে ঘরে বসেই। এতদিন বিকাশ একাউন্ট খোলার জন্য সবাইকে এজেন্টের কাছে যেতে হতো কিন্তু বিকাশের নতুন অ্যাপ এর নতুন আপডেট এর মাধ্যমে ঘরে বসেই এক মিনিটের মধ্যেই আপনার ভোটার আইডি কার্ড দিয়ে একাউন্ট খুলতে পারবেন সবচেয়ে সহজে এবং সবচেয়ে মজার বিষয় হল কাজটি করতে আপনাকে একবারের জন্যেও বিকাশ এজেন্টের কাছে যেতে হবে না।

বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম কি?

বিকাশ একাউন্ট খোলা একদম সহজ। দেখে নেয়া যাক কিভাবে আপনার মোবাইল ফোনের মাধ্যমে বিকাশ একাউন্ট খুলবেন ঘরে বসেই। মোবাইল ফোনের মাধ্যমে বিকাশ একাউন্ট খোলার জন্য অবশ্যই আপনার মোবাইল ফোনে বিকাশ অ্যাপটিকে(bKash App) ইন্সটল করে নিতে হবে। তারপর –

Step 1 – প্রথম ধাপঃ লগইন/রেজিষ্ট্রেশন এর মধ্যে ক্লিক করুন
Step 2 – দ্বিতীয় ধাপঃ আপনার ১১ ডিজিটের মোবাইল নাম্বারটি দিয়ে পরবর্তী বাটনে ক্লিক করুন
Step 3 – তৃতীয় ধাপঃ অপারেটর বেছে নিন, ভেরিফিকেশন কোড কনফার্ম করুন
Step 4 – চতুর্থ ধাপঃ অ্যাকাউন্ট রেজিস্ট্রেশন এর শর্তাবলী পড়ুন এবং নিয়ম ও শর্তসমূহ বাটনে ক্লিক করুন
Step 5 – পঞ্চম ধাপঃ তারপর তিনটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ মেনে চলুন

১ আপনার NID এর ছবি তুলুন
২ প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান করুন
৩ নিজের চেহারার ছবি তুলুন

ব্যস, সবকিছু সঠিকভাবে সাবমিট করে দিলে পরবর্তী ৭২ ঘন্টার মধ্যে আপনার বিকাশ(bKash) একাউন্ট সচল হয়ে যাবে। এভাবে সহজে আপনি বিকাশ একাউন্ট খুলে ফেলে লেনদেন শুরু করতে পারবেন।

অনলাইন শপিং ওয়েবসাইট – বাংলাদেশের সেরা ১১ 0 1121

অনলাইন শপিং ওয়েবসাইট

অনলাইন শপিং ওয়েবসাইট কি?

অনলাইনে কেনাকাটা করার সহজ ও সেরা মাধ্যম হল অনলাইন শপিং সাইট(Online shopping sites)। একবিংশ শতাব্দীতে আজ সারা পৃথিবী ব্যাপী বেশ জনপ্রিয় কেনাকাটার মাধ্যম হল অনলাইন শপ। সময় বাঁচিয়ে, রোদ কিংবা জ্যাম এড়িয়ে ঘরে বসে বাজার দরের চেয়ে কম দামে যদি পণ্য অর্ডার করে যদি হোম ডেলিভারি পাওয়া যায়, তবে সে সুযোগ কে নিতে চাইবে না? আর কেবল সাধারণ পণ্য না, যদি সুযোগ থাকে মুভি টিকেট, বিমান-রেল-বাস-লঞ্চের টিকেট লাইনে না দাঁড়িয়ে ঘরে বসে কাটার, তবে যে কেউই তো সেই সুযোগ নিতে চাইতেই পারে!

এবার জেনে নেয়া যাক দেশের সেরা ১১ টি জনপ্রিয় অনলাইন শপিং ওয়েবসাইট সম্পর্কে

১। দারাজ বাংলাদেশ

২০১৪ সালে প্রতিষ্ঠিত দারাজ বাংলাদেশ(Daraz BD) এখন বিশ্বের সবচেয়ে বড় অনলাইন শপিং কোম্পানি আলিবাবার অঙ্গ সংগঠন। দীর্ঘ সময় ধরে দারাজ বাংলাদেশী গ্রাহকদের কাছে সবচেয়ে আস্থাভাজন নাম। দারাজে পাওয়া যায় না এমন পণ্য নেই। আর তাদের তো সুনাম রয়েছে সবচেয়ে দ্রুতগামী ডেলিভারি করার। অফার, ডিল, ডিসকাউন্ট, ডেলিভারি সময়, পণ্যের বৈচিত্র্যতা, অরিজিনাল ব্র্যান্ডের পণ্য সহ বাহারি সুবিধায় দারাজ থাকবে তালিকার ১ নম্বরে।

২। ইভ্যালি ডট কম

দেশীয় কোম্পানী ইভ্যালি(Evaly) ২০১৯ সাথে প্রতিষ্ঠিত হয়েই অবিশ্বাস্য অফার দিয়ে গ্রাহকদের খুব কাছে পৌঁছতে পেরেছে। যদিও তাদের পণ্য ডেলিভারি করতে অন্য প্রতিষ্ঠান গুলোর চেয়ে একটু বেশি সময় লাগে। কিন্তু এ কথা সত্য ইভ্যালি অফার এর মত এত ক্রেজি অফার দিতে পারেনি কেউ বাংলাদেশে। তাই কেবল অফার দিয়েই ক্রেতাদের ধরে রাখতে একটুও বেগ পেতে হয়নি ইভ্যালি ডট কম ডট বিডি’র। ই-ভ্যালি থাকছে তালিকার ২ নম্বরে।

৩। বিকাশ

বিকাশ(bKash) বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় মোবাইল ফোন ভিত্তিক টাকা স্থানান্তর (এমএফএস) সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান। এটি বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় অর্থায়ন প্রতিষ্ঠান। এটি ব্যাঙ্ক একাউন্টবিহীন ব্যক্তিদের আর্থিক সেবা প্রদানের লক্ষ্যে চালু করা হয়েছিল। আর অনলাইন পেমেন্ট বা অনলাইন শপিং এর সবচেয়ে বড় মাধ্যম এখন বিকাশ। নতুন গ্রাহকদের জন্য থাকছে জনপ্রিয় মোবাইল ব্যাংকিং সার্ভিস বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম

৪। আজকের ডিল

আজকের ডিল(AjkerDeal) বাংলাদেশে ই-কমার্স শিল্প শুরুর প্রথম দিকের প্রতিষ্ঠান। বৃহৎ চাকুরি খোঁজার পোর্টাল বিডিজবসের সহ প্রতিষ্ঠান আজকের ডিল ডট কম। প্রায় সকল ক্যাটেগরির পণ্য অনলাইনে কেনাকাটার অন্যতম জনপ্রিয় অনলাইন শপ আজকের ডিল।

৫। উবার বাংলাদেশ

উবার (Uber) মোবাইল স্মার্টফোনের অ্যাপ-ভিত্তিক ট্যাক্সি সেবার নেটওয়ার্ক। আমেরিকা ভিত্তিক অনলাইন পরিবহন নেটওয়ার্ক কোম্পানি উবারের কোন নিজস্ব ট্যাক্সি নেই। উবারের কিছু নির্ণায়ক যোগ্যতা বা শর্ত পূরণ করে ব্যক্তিগত গাড়ি আছে এমন যে কোন ব্যক্তিই উবার টিমের সাথে যুক্ত হতে পারেন। অন্যান্য দেশের মত বাংলাদেশেও অনলাইনের মাধ্যমে গাড়ি সেবা নেয়ার সুবিধা এখানেও জনপ্রিয়তা পেয়েছে।

৬। সহজ ডট কম

সহজ ডট কম(Shohoz) দেশীয় অর্থায়নে প্রতিষ্ঠিত আরেকটি জনপ্রিয় অনলাইন প্রতিষ্ঠান। রাইড সেবা, ফুড সেবা থেকে শুরু করে লঞ্চ কেবিন কিংবা বাস টিকেটিং – গ্রাহকরা সব কিছুই পাবেন সহজ থেকে।

৭। চাল ডাল

চালডাল ডট কম(Chaldal) বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় গ্রোসারি অনলাইন শপ। ২০১৩ সালে প্রতিষ্ঠিত চালডালে ফ্রেশ ফুড, সবজী, মাংস, ডেইরি, গ্রোসারি, ব্যক্তিগত পণ্য থেকে গৃহস্থালি পণ্য সবই হোম ডেলিভারি করে থাকে। তবে প্রতিষ্ঠানটি এখনো ঢাকার বাইরে তাদের সেবা প্রদান শুরু করতে পারেনি।

৮। বিডি টিকেটস

ডমেস্টিক বাস, গ্রীন লাইন ওয়াটার বাস, বিমান টিকেট কাটার সবচেয়ে সহজ উপায় হল বিডি টিকেটস ডট কম। স্টেশনের লম্বা লাইন এড়িয়ে এখন ঘরে বসেই ডিসকাউন্ট সহ অনলাইন টিকেটিং সেবা দিচ্ছে বিডি টিকেটস(BDTickets)।

৯। পিকাবু ডট কম

২০১৬ সালে প্রতিষ্ঠিত পিকাবু ডট কম(Pickaboo) মোবাইল ফোন, গ্যাজেট, কিচেন অ্যাপ্লায়েন্স ও ইলেক্ট্রনিকস এর জন্য বেশ জনপ্রিয় অনলাইন শপ। দ্রুতগতির হোম ডেলিভারির জন্য পিকাবু বেশ খ্যাত।

১০। মোনার্ক মার্ট

মোনার্ক মার্ট(Monarch Mart) বাংলাদেশের অনলাইন শপিং খাতের সর্বশেষ সংযোজন। ২০২২ সালে আবির্ভুত হয়েই বেশ সাড়া ফেলেছে বাংলাদেশী গ্রাহকদের মাঝে। এখান থকে প্রায় সকল ক্যাটেগরির পণ্যই অনলাইনে কেনাকাটা করা যায়। সাকিব আল হাসান মোনার্ক মার্টের চেয়ারম্যান।

১১। পাঠাও

পাঠাও(Pathao) অনলাইনের মাধ্যমে রাইডশেয়ারিং সেবাদানকারী একটি বাংলাদেশী কোম্পানি। এটি মূলত বাংলাদেশের প্রধান ৩ শহর ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেটে তাদের রাইড শেয়ারিং সেবা দিয়ে থাকে। বাংলাদেশের বাইরে নেপালেও পাঠাও সেবা দিয়ে থাকে।

Most Popular Topics

Editor Picks